Amardesh
আজঃ    আপডেট সময়ঃ

জাবিতে বাড়ছে আত্মহত্যা প্রবণতা

ডেস্ক রিপোর্ট
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) একের পর এক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে। এতে করে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাড়ছে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা।
প্রেমে ব্যর্থতা, পারিবারিক কলহ আর চাকুরির হতাশা কে আত্মহত্যার প্রধান কারন হিসেবে দেখছেন জাবিতে কর্মরত মনোবিজ্ঞানী শোভাশিস কুমার ও ইসরাত জাহান।
ক্যাম্পাসে হলের পাশাপাশি ভাড়া বাসাতেই বেশি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে।
শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশমাইল আবাসিক এলাকার (ই ২৭) ভাড়া বাসায় আত্মহত্যা করেন তানজিনা আাক্তার সুক্তি নামের এক সাবেক ছাত্রী। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের ৩৫ তম ব্যাচের প্রাক্তণ ছাত্রী ছিলেন। পারিবারিক কলহের জেরে আত্মহত্যা করতে পারেন বলে সহপাঠীদের সূত্রে জানা গেছে।
এর আগে ২০১১ সালের ৯ আগস্ট প্রেম ঘটিত কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের জাহানারা ইমাম হলের ৩২৩ নং কক্ষে গলায় ফাস দিয়ে আত্মহত্যা করেন ইতিহাস বিভাগের (¯œাতকে প্রথম) মারজিয়া জান্নাত সুমি। উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মো: মনিরুজ্জামান শিকদার সুমনের সঙ্গে সুমীর দীর্ঘ দিনের প্রেমের সম্পর্ক থাকলেও বিয়েতে অস্বীকৃতি জানালে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় সুমি।
এছাড়া জাবি পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র সাখাওয়াত হোসেন জিমির (৩২ ব্যাচ) সঙ্গে মনোমালিন্য হলে ফারহা-নাজ রুহির (৩৭ ব্যাচ, অর্থনীতি) সাভারের ব্যাংক কলোনীর ই-২ নম্বর ভাড়া বাসায় আত্মহত্যা করেন। পরে জিমিকে পুলিশ আটক করেছিল।
জাবিতে কর্মরত মনোবিজ্ঞানী ইসরাত জাহান শীর্ষ নিউজকে বলেন,‘ বেশিরভাগ আত্মহত্যার ক্ষেত্রে হতাশা কাজ করে। প্রেমঘটিত কারণ, পারিবারিক কারণ ও সাবেক শিক্ষার্থীরা চাকুরি জনিত হতাশায় ভোগে থাকে। তবে সবার সঙ্গে মিশতে হবে, মনের কথা শেয়ার করতে হবে। আর শিক্ষার্থীরা সজাগ থাকলে এমন ঘটনা ঘটবেনা’।