Amardesh
আজঃ    আপডেট সময়ঃ

সর্বোচ্চ বরাদ্দের প্রকল্প বাস্তবায়নও শতভাগের নীচে

ডেস্ক রিপোর্ট
সদ্য সমাপ্ত ২০১৪-১৫ অর্থবছরে শতভাগ বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী (এডিপি) বাস্তবায়ন হয়নি। আলোচ্য সময়ে বাস্তবায়ন হয়েছে ৯১ শতাংশ।
এমনকি শতভাগ বাস্তবায়ন করতে পারেনি সর্বোচ্চ বরাদ্দপ্রাপ্ত ১০টি মন্ত্রণালয়-বিভাগও। অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত এসব মন্ত্রণালয় ৯৬ শতাংশ এডিপি বাস্তবায়ন করতে পেরেছে।
পরিকল্পনা কমিশনের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) সর্বশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য পাওয়া গেছে।
পরিকল্পনা কমিশন, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্টরা গত অর্থবছরে শতভাগ এডিপি বাস্তবায়নের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিল। সে লক্ষ্যে সর্বোচ্চ বরাদ্দপ্রাপ্ত মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়নে জোর দেওয়া হয়। এমনকি পরিকল্পনা মন্ত্রীও সংশ্লিষ্টদের শতভাগ এডিপি বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু গতবারের মতো এবারো শতভাগ এডিপি বাস্তবায়নে ব্যর্থ হয়েছে।
গত ২০১৪-১৫ অর্থবছরে মূল এডিপির ৭১ শতাংশ বরাদ্দ দেওয়া হয় বড় ১০টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে। এসব মন্ত্রণালয় ও বিভাগে বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রকল্পের সংখ্যা ৬৯১টি। এসব বিভাগের জন্য এডিপিতে বরাদ্দ রাখা হয় ৬০ হাজার ৫৮৬ কোটি ৭৪ লাখ টাকা। পরে সংশোধিত এডিপিতে এটি কমিয়ে ৫৫ হাজার ৩৩৬ কোটি ৯৭ লাখ টাকা করা হয়। এটি মূল এডিপির ৭১ শতাংশ। এর বিপরীতে এসব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ পুরো অর্থবছরে ৫৩ হাজার ২৭ কোটি ১ লাখ টাকা খরচ করতে পেরেছে। যা মোট বরাদ্দের ৯৬ শতাংশ।
আইএমইডি’র এডিপি বাস্তবায়নের বিভিন্ন প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, গত পাঁচ বছরেই সর্বোচ্চ বরাদ্দের এসব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ মূল এডিপির মতো শতভাগ এডিপি বাস্তবায়ন করতে পারেনি।
এর আগের ২০১৩-১৪ অর্থবছরে মন্ত্রণালয় ও বিভাগে বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রকল্পের সংখ্যা ছিল ৭৪০টি। এসব বিভাগের জন্য সংশোধিত এডিপিতে বরাদ্দ রাখা হয় ৪৭ হাজার ৭৯৪ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। এটি ছিল মূল এডিপির ৭৫ শতাংশ। এর বিপরীতে এসব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ পুরো অর্থবছরে ৪৩ হাজার ৭৫ কোটি ৫২ লাখ টাকা খরচ করতে সক্ষম হয়। সেটিও ছিল মোট বরাদ্দের ৯৬ শতাংশ।
সংস্থার সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত অর্থবছরে শতভাগ এডিপি বাস্তবায়ন করতে পেরেছে তিন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ। এর মধ্যে বিদ্যুৎ বিভাগ সর্বোচ্চ ১০১ শতাংশ এডিপি বাস্তবায়ন করেছে। ৬৯ প্রকল্পের বিপরীতে মূল এডিপির ১১ শতাংশ বরাদ্দ ছিল এই বিভাগের জন্য। বিভাগটির ৮ হাজার ২৭৬ কোটি ৮২ লাখ টাকা বরাদ্দের বিপরীতে ৮ হাজার ৩৩০ কোটি ৮৬ লাখ টাকা ব্যয় করতে পেরেছে। বাড়তি টাকা গত অর্থবছরের বরাদ্দ থেকে কিছুটা ব্যয় করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ।
এছাড়া সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় শতভাগ এডিপি বাস্তবায়ন করেছে। তবে ৯০ শতাংশের বেশি বাস্তবায়ন করতে পারেনি তিন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ।
শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও রেলপথ মন্ত্রণালয় ৯৯ শতাংশ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ৯৭ শতাংশ এবং স্থানীয় সরকার বিভাগ (থোক বরাদ্দসহ) ৯৬ শতাংশ এডিপি বাস্তবায়ন করেছে।
আর ৯০ শতাংশের নিচে বাস্তবায়নকারী বিভাগ ও মন্ত্রণালয়ের মধ্যে, সেতু বিভাগ ৮৯ শতাংশ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিভাগ ৮৭ শতাংশ এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সবচেয়ে কম ৮৫ শতাংশ এডিপি বাস্তবায়ন করতে পেরেছে।
পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের (জিইডি) সদস্য ড. শামসুল আলম রাইজিংবিডিকে বলেন, অর্থবছরের মাঝামাঝি সময়ে তিন মাস রাজনৈতিক অস্থিরতার প্রভাব মূল এডিপির মতো সর্বোচ্চ বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রকল্পেও পড়েছে। তবে এসব বিভাগ মূল এডিপি থেকে পাঁচ শতাংশ বেশি বাস্তবায়ন করেছে, এটি অবশ্যই ইতিবাচক দিক।
তিনি বলেন, গত অর্থবছরে সমাপ্তির লক্ষ্য নেওয়া প্রকল্পগুলো এবং বিশেষ অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত কিছু বড় প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধকতা তৈরি হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তবে ৯৬ শতাংশ বাস্তবায়ন নিয়েও আমরা খুশি হতে পারি, যেখানে মূল এডিপি’র চেয়ে বিভাগগুলো বেশি বাস্তবায়ন করতে পেরেছে।