Amardesh
আজঃ
 
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

বৃষ্টিতে সৃষ্টি মানুষের চরম দুর্ভোগ

মো. মাহবুব আলম লাভলু, মতলব
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
বৃষ্টিতে সৃষ্টি হয়েছে চরম দূর্ভোগ। মতলব উত্তর উপজেলার মানুষের বেহাল দশা। প্রায় দু’মাস যাবৎ বৃষ্টি মাঝে মাঝে আসে নাই, মাঝে মাঝে বন্ধ ছিল। শুধু বৃষ্টি আর বৃষ্টি। চার যুগেও এবারের মতো এমন বৃষ্টি হয়েছে বলে কারো মনে নেই। বৃষ্টির কারনে এবার ঈদুল ফেতরের নামাজ পড়তে হয়ে অধিকাংশ এলাকায় মসজিদে। ঈদের আনন্দ কেটেছে ঘরকোনে। বৃষ্টির কারনে মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পে ভয়াবহ জলাদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে, ফসল নষ্ট হয়ে গেছে, পাঁকা ও কাঁচা রাস্তা চলাচলে অনুপযোগি হয়ে যাচ্ছে, মৎস্য খামার তলিয়ে গেছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কমে গেছে , বাজারে বিক্রি কম, শ্রমিকদের উপার্জন নেই, মধ্যবৃত্ত ও নিন্মবৃত্ত পরিবারে চলছে অভাব-অনটন।
সড়েজমিনে দেখা যায়, এবারে বৃষ্টিতে মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পে ভয়াবহ জলাদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। জলাবদ্ধতায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, বৃষ্টিতে সৃষ্টি জলাদ্ধতায় ৩শ’ হেক্টর জমির আউশ ধানের জমি ও ৩০ হেক্টর আমন ধানের বীজতলা নষ্ট হয়ে গেছে। উচু জমিতে জলাবদ্ধতার কারনে অনেক কৃষক এখনও আমন ধানের বীজতলা করতে পারেনি। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল কাইয়ুম মজুমদার জানান, বৃস্টিও পানিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় ও দ্রæত পানি না সড়ানোর ফলে আউশ ধানের জমি ও আমন ধানের বীজ তলা নষ্ট হয়েছে। আমরা আমন ধানের বীজ কৃষকের মাঝে সরবরাহ করা চেষ্টা করছি। বৃষ্টি ও বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে এ উপজেলার পাঁকা ও কাঁচা রাস্তা অনেক ক্ষতি হয়েছে।পাঁকা রাস্তায় গর্ত ও কাঁচা রাস্তায় কাঁদার কারনে যানবাহন ও মানুষ চলাচলে অনুপযোগি হয়ে পড়ছে। কাঁচা রাস্তাগুলো এমন খারাপ হয়েছে মানুষ রাস্তার কারনে বাড়ী থেকে বের হতে পারছে না। বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে মৎস্য খামার। খামার থেকে মাছ বেরিয়ে চারিদিকে ছরিয়ে পড়েছে। এতে করে খামারীরা মূলধন হারাবে ও বাজারে মাছের গারতি দেখা দিবে। বৃষ্টি ও বৃষ্টির কারনে সৃষ্টি খারাপ রাস্তা-ঘাটের কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কমে গেছে। বৃষ্টির কারনে জমি ও নির্মান প্রতিষ্ঠানে কাজ হচ্ছে না। যার কারনে শ্রমিকদের উপার্জন নেই। মধ্যবৃত্ত ও নিন্মবৃত্ত পরিবারে চলছে অভাব-অনটন। সার্বিক ভাবে মতলব উত্তরে সাধারন মানুষের বেহাল দশা বিরাজ করছে। মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পে জলাদ্ধতা দ্রæত নিরসন ও রাস্তা-ঘাট মেরামত প্রয়োজন। তা না হলে মানুষের দূর্ভোগ চরম আকার ধারন করবে।