Amardesh
আজঃ
 
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির এক কর্মকর্তা মানবপাচারের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
পার্বতীপুরে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম-মেকানিকাল) একেএম খাদেমুল ইসলাম বিদেশে মানব পাচারের সাথে জড়িত বলে অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি খাদেমুল ইসলাম তার গাড়ী চালক মোখলেছুর রহমান খাজার ছেলে সজিবকে (২০) জাল ভিসায় সুইডেনে পাঠাতে গেলে বিষয়টি ধরা পড়ে। এ ঘটনায় গোটা খনি এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে নিয়োজিত গাড়ী চালক (প্রশাসন বিভাগ) মোখলেছুর রহমান খাজার জানান- ডিজিএম খাদেমুল ইসলাম তাকে বিভিন্নভাবে প্রলুব্ধ করে ছেলে সজিবকে সুইডেনে পাঠানোর কথা বলে ৮ লাখ টাকা গ্রহণ করে এবং পাসপোর্ট নিয়ে জাল ভিসা দেয়। পরে সুইডেন দূতাবাস থেকে তিনি জানতে পারেন এটি জাল ভিসা। জাল ভিসার বিষয়টি কাউকে না জানাতে ডিজিএম খাদেমুল তাকে চাপ দেন এবং ভয়ভীতি দেখান বলে অভিযোগ করেন। এ বিষয়ে গত ৮ জুলাই বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়। পরে ডিজিএম খাদেমুল সোনালী ব্যাংক বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শাখার সাড়ে ৭ লাখ টাকার একটি ভূয়া চেক মোখলেছুর রহমানকে প্রদান করে। খাদেমুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে জাল ভিসার মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে মানব পাচার করে আসছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিনুজ্জামান অভিযোগ পাওয়ায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ ব্যাপারে পার্বতীপুর মডেল থানাল অফিসার ইনচার্জ মাহমুদ আলম গতকাল বিকেলে এ প্রতিনিধিকে জানান মামলা দায়ের হয়েছে। তিনি নিজেই মামলা তদন্ত করে মানব পাচারের কোন সত্যতা পাননি বলে জানান।