Amardesh
আজঃ
 
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

নরসিংদী জেলা ড্রাগ সমিতির সভাপতি ডাঃ সেলিমকে কুপিয়ে হত্যা

নরসিংদী প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
নরসিংদী জেলা ক্যামিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতির সভাপতি, ওষুধ ব্যবসায়ী এবং সেলিম মেডিক্যাল হলের সত্বাধিকারী হাজী মোঃ সেলিম (৬৫)কে দুর্বৃত্তরা নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে। রোববার রাত ১০ টায় জেলা শহরের পশ্চিম ব্রাহ্মন্দী বালুরচর এলাকায় তার নতুন বাড়ির সম্মুখে কতিপয় দুর্বৃত্তারা অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। এসময় দুর্বৃত্তরা হাজী সেলিমকে নৃসংশভাবে কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়। এই চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডে কারা জড়িত রয়েছেন তা তাৎক্ষণিক ভাবে কেউ বলতে পারেননি। হত্যঅকান্ডের ঘটনায় মডেল থানা পুলিশ এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কাউেিক গ্রেঢতার করতে পারেনি। ঘটনার রাত ১০ টায় ডাঃ মোঃ সেলিম তার কাজ শেষে বাড়িতে প্রবেশকালে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা ৭/৮ জনের দুর্বৃত্তদের একটি দল ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে রাস্থায় ফেলে চলে যায়। এসময় স্থানীয় লোকজন ও তার স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থা খুবই মুমূর্ষ দেখে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে দ্রæত ঢাকায় প্রেরণ করেন। ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তৃব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
তার এই নির্মম হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে নরসিংদী জেলা ওষুধ ব্যবসায়ী সমিতি সোমবার দুপুর ১২ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত জেলার ওষুধ ব্যবসায়ীদের দোকান বন্ধ রেখে শোক প্রকাশ করেন। ঢাকা মেডিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে তার মরদেহ নরসিংদীতে নিয়ে এলে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। বাদ আছর নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় তার নামাজে জানাজা শেষে মরদেহ তার গ্রামের বাড়ি গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার সন্মানীয়া গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে তার আতœীয়রা জানান। এই নির্মম হত্যাকান্ডে পেছনে কারা জড়িত তা কেউ নিশ্চিত করে বলতে পারছে না। তবে তার পারিবারিক এবং ওষুধের দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলছিল বলে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এই বিরোধকে কেন্দ্র করেই হত্যাকান্ডে শিকার হয়েছেন হাজী মোঃ সেলিম। এ হত্যাকান্ডে ঘটনায় সোমবার দুপুরে দিকে নিহত সেলিম মিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রী আছমা আকতার বাদী হয়ে নরসিংদী সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় এ পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার কিংবা আটক হয়নি। এব্যাপারে নরসিংদী সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ কে.এম আবুল কাশেম জানান, সেলিম হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত খুনিদের খুব দ্রæতই গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।