Amardesh
আজঃ
 
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

বামনায় স্কুল ছাত্রীকে দুই দিন আটকে রেখে ধর্ষণ : ধর্ষক গ্রেফতার

বামনা (বরগুনা) প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
বরগুনার বামনা উপজেলার ছোনবুনিয়া গ্রামের ৭ম শ্রেনীতে পড়–য়া এক স্কুল ছাত্রীকে পথ থেকে তুলে নিয়ে আটকে রেখে দুই দিন ধরে ধর্ষন করেছে আলফু হাওলাদার (৩৫) নামে নিকট আত্মীয় এক চাচা। এ ঘটনায় স্থানীয় জনতা অভিযুক্ত লম্পট চাচাকে আটক করে মেয়েটিকে উদ্ধার করার পর গ্রাম্য সালিশিতে দফারফা করার ব্যর্থ চেষ্টা চালায় প্রভাবশালীরা। এরপর ভুক্তভোগী মেয়েটির মা বাদী হয়ে গতকাল সোমবার বামনা থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করে। দুপুরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার ছোনবুনিয়া গ্রাম থেকে অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেফতার করে। থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, বামনা উপজেলার হলতা-ডৌয়াতলা বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী গত শুক্রবার সকালে প্রাইভেট পড়ে ডৌয়াতলা ইউনিয়ন বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলো। এ সময় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে লম্পট চাচা আলফু মেয়েটিকে পথ থেকে তুলে নিয়ে যায়। এর পর পার্শ্ববর্তী মঠবাড়িয়া উপজেলার গিলাবাদ গ্রামে ওই লম্পটের নিকট আত্মীয়ের বাড়িতে আটকে রেখে দুই দিন ধরে উর্যুপরি ধর্ষন করে। পরে রবিবার সকালে মেয়েটিকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার সময় স্থানীয় জনতার হাতে ধর্ষক আলফু আটক হয়। খবর পেয়ে মেয়েটির পরিবার ওই স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে। ভ‚ক্তভোগী মেয়েটির মা অভিযোগ করেন, এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালী সালিশির চেষ্টা চালিয়ে সময় ক্ষেপন করে। গতকাল সোমবার মেয়েটির মা বাদি হয়ে বামনা থানায় অভিযুক্ত ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।
এ বিষয়ে মেয়েটির স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. নুরুল হক খান বলেন, ঘটনাটি আজকেই মেয়েটির পরিবার স্কুলে জানিয়েছে। বিষয়টি স্থানীয় সালিশিতে নিষ্পত্তির চেষ্টা চলছিলো জেনে মেয়েটির পরিবারকে থানায় মামলা দায়েরের পরামর্শ দেই।
এব্যাপারে বামনা থানার অফিসার ইন চার্জ মো. ওমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ভ‚ক্তভোগী মেয়েটির মা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে অভিযুক্ত ধর্ষক আলফুকে গ্রেফতার করা হয়। মেয়েটির ডাক্তারী সনদের জন্য বরগুনা সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।